নীড় / টিউটোরিয়াল / ওয়ার্ডপ্রেস / ওয়ার্ডপ্রেসের প্রাথমিক সমস্যা ও সমাধান: শেষ পর্ব.!
wordpress

ওয়ার্ডপ্রেসের প্রাথমিক সমস্যা ও সমাধান: শেষ পর্ব.!

ওয়ার্ডপ্রেস একটি পিএইচপি ও মাইএসকিউএল দ্বারা তৈরি উন্মুক্ত প্রযুক্তি ব্লগিং সফটওয়্যার। কন্টেন্ট ম্যানেজমেন্ট সিস্টেমে বর্তমানে এটি সর্বাধিক জনপ্রিয়। বিশ্বের প্রথম সারির ১০,০০,০০০টি ওয়েবসাইটের ১২% এটি ব্যবহার করে। কোনো প্রকার পিএইচপি বা মাইএসকিউএল জ্ঞান ছাড়াই সহজে ব্লগিং ওয়েবসাইট তৈরি করার সুবিধা রয়েছে এতে। এজন্য যারা ওয়েবসাইট তৈরি করতে চান তাদের বেশিরভাগই ওয়ার্ডপ্রেসের সরণাপন্ন হন। তবে ওয়েডপ্রেসে প্রথম কাজ করতে গিয়ে অনেকেরই বিভিন্ন বিষয় না জানার কারণে সমস্যার মুখোমুখি হতে হয়। প্রাথমিকভাবে মুখোমুখি হওয়া এমনই সমস্যা নিয়ে এই পোস্ট। এর আগে এ পোস্টটির প্রথম পর্ব প্রকাশিত হয়। এখান থেকে পোস্টটি দেখে নিতে পারেন।

আসুন জেনে নিই ওয়ার্ডপ্রেসের পরবর্তী সমস্যা ও সমাধানগুলো নিয়ে…

১১. কিভাবে পেজে যুক্ত করার জন্য গ্যালারিতে ইমেজ আপলোড করা যায়?

সমাধান : ওয়ার্ডপ্রেসের কোনো পোস্টে বা পেজে ইমেজ বা ছবি যুক্ত করার জন্য এর বিল্ট ইন গ্যালারি রয়েছে। তবে আপনি যদি আপনার অ্যালবাম বা গ্যালারিকে নিজের মতো করে সাজাতে চান তাহলে নেক্সটজেন গ্যালারি প্লাগ-ইন ব্যবহার করতে পারেন।

media upload

১২. কিভাবে ওয়ার্ডপ্রেসে স্লাইডার তৈরি করা যায়?

সমাধান : ওয়ার্ডপ্রেসে স্লাইডার তৈরির জন্য হাজার হাজার ফ্রি ও পেইড প্লাগ-ইন আচে। তবে ব্যবহারের সুবিধার্তে জনপ্রিয় স্লাইডডেক। ওয়ার্ডপ্রেস ব্যাকএন্ড থেকে এটি সহজেই নিয়ন্ত্রণ করা যায়।

১৩. কিভাবে কনট্যাক্ট ফর্ম তৈরি করতে হয়?

সমাধান : ওয়ার্ডপ্রেসে কনট্যাক্ট ফর্ম তৈরির জন্য বিনামুল্যের অসাধারণ একটি প্লাগ-ইন কনট্যাক্ট ফর্ম ৭। তবে বাড়তি ফিচার হিসেবে আরো কিছু পেতে চাইলে গ্রাভিটি ফর্মস ব্যবহার করতে পারেন। এই প্লাগ-ইনটির মাধ্যমে আপনি পেমেন্ট পাওয়া, ইমেইল ক্যাপচার করাসহ বিভিন্ন তথ্য পাওয়া যাবে।

contact form

১৪. রাইট নাউ উইজেটের সুবিধা কি কি?

উত্তর : রাইট নাও উইজেটের মাধ্যমে আপনি কতগুলো পোস্ট হয়েছে, কতগুলো পেজ আছে, কতগুলো কমেন্ট হয়েছে, কতগুলো ক্যাটাগরি আছে, কতগুলো ট্যাগ আছে, কতগুলো কমেন্ট অ্যাপ্রুভ করার জন্য ওয়েট করতেছে, কতগুলো স্প্যাম ধরা পড়েছে ইত্যাদি জানতে পারবেন। আপনি কোন ভার্সন ব্যবহার করছেন, আপনি কোন থিম ব্যবহার করছেন। কতগুলো উইজেট ব্যবহার করছেন। অর্থাৎ আপনি আপনার সাইটের তুলনামূলক একটা রিপোর্ট পাবেন। আপনি এখান থেকে পোস্ট, কমেন্ট, পেজ ইত্যাদি আপনার প্রয়োজনমত সংকলন বা পরিমার্জন করতে পারবেন।

১৫. কিভাবে প্লাগ-ইন ইনস্টল করা যায়?

আপনি প্রথমে প্লাগইন ডাইরেক্টরীতে যান। সেখানে সার্চ বক্সে কাংখিত প্লাগ-ইনটির নাম লিখুন এবং সার্চ করুন। প্লাগ-ইনটি নিচে শো করবে। সেখান তেকে ওহংঃধষষ বাটনে ক্লিক করুন। প্লাগ-ইনটি ইনস্টল হলে অ্যাক্টিভেট বাটনে ক্লিক করে সক্রিয় করুন।

সম্বন্ধে রিফাত হোসেন

এছাড়াও পড়ুন

ওয়েব ডিজাইনার

শীর্ষ ১০টি ওয়েব ডিজাইনার এবং ডেভেলপার টুল.!

আজ আমি সব ওয়েব ডেভেলপারদের জন্য ওয়েবসাইট বা অ্যাপ শেয়ার করছি যা ওয়েবসাইট ডিজাইন এবং …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

1 × three =