নীড় / টিউটোরিয়াল / আপনার ব্লগকে সার্চ রেজাল্টে প্রথম পেইজে নিয়ে আসার উপায়সমূহ.!
Blog

আপনার ব্লগকে সার্চ রেজাল্টে প্রথম পেইজে নিয়ে আসার উপায়সমূহ.!

প্রত্যেক ব্লগারের স্বপ্ন থাকে তার ব্লগকে সার্চ রেজাল্টের প্রথম পেইজে নিয়ে আসা। তবে এটি খুব একটা সহজ হয়ে উঠেনা যদি না আপনি রুল অনুযায়ী কাজ করেন। আপনার ব্লগকে প্রথম পেইজে নিয়ে আসতে হলে রুল অনুযায়ী কঠোর পরিশ্রম করার মাধমেই আপনি করতে পারবেন।

নিম্নে আমি গুগলের আপডেটের রুল অনুযায়ী কিভাবে আপনার সাইটকে সার্চ রেজাল্টে এগিয়ে আনবেন এটি নিয়ে আলাপ করছি। তাহলে আর কথা না বাড়িয়ে আসুন শুরু করি।

#হাই কোয়ালিটি ইউনিক কন্টেন্টঃ

কনটেন্ট

এক কথায় বলতেই হয় কন্টেন্ট ইজ কিং অলঅয়েস 🙂। একটা সময় ছিল যখন আপনি শুধু মাত্র ব্যাকলিঙ্ক করে আপনার সাইটকে র‍্যাঙ্ক করাতে পারতেন যদি আপনার কন্টেন্ট কপি পেস্টও হত। কিন্তু এখনো কি তা সম্ভব?

না , সম্ভব না , তাইনা ? কারন গুগলের পান্ডা এবং পেঙ্গুইন আপডেডের ফলে সব কিছুই পরিবর্তন হয়ে গেছে। আগে যারা যেই সাইট থেকে প্রতি মাসে ২০,০০০-৩০,০০০ টাকাও কামাতো তারা এখন কোন টাকাই তাদের সাইট থেকে ইঙ্কাম করতে পারছেনা তাই কন্টেন্ট এর গুরুত্ত এটি দ্বারা বুঝা যায় । তাই বর্তমানে আপনার সাইটকে র‍্যাঙ্ক করতে হলে হাই কোয়ালিটি ইউনিক কন্টেন্টের ভ্যালু অপরিসীম । পোস্টিং করার অনেক নিয়মই আছে তবে আমার মতে ১০০% ইউনিক ৪০০-৬০০ ক্যারেক্টারের পোস্ট করলেই যথেষ্ট।

অনেক ব্লগার তার সাইটকে ওভার অপ্টিমাইজ করে ধরা খায় , তারা মনে করে ওভার কী-ওয়ার্ড ডেনসিটি অথবা অন্য কোন টেকনিক ফলো করে র‍্যাঙ্কে এগিয়ে যেতে পারবে। আসলে তা ভুল, এতে নিজের সাইটের লাভের চেয়েও ক্ষতি বেশি হবে । সুতারাং যাই করেন না ক্যানো, ন্যাচারেলি করবেন ! তাই পুরনো দিন ভুলে নতুন দিনে এগিয়ে যান।

#গেস্ট ব্লগিংঃ

guest blogging

অনেকেই গেস্ট ব্লগিং করেন না তবে বর্তমানে গেস্ট ব্লগিংয়ের ভূমিকা অপরিসীম । তবে সব ব্লগেই গেস্ট ব্লগিং করে কোন লাভ নেই আপনি অবশ্যই বেশ কিছু অথোরিটি সাইটে ব্লগিং করবেন। এই অথোরেটি সাইটগুলো আপনার ব্লগকে সার্চ রেজাল্টে এগিয়ে আনার জন্য অনেক বেশি হেল্প করবে। কারন আপনি যখন অথোরেটি সাইটে ব্লগিং করবেন তারা আপনাকে দুইভাবে সাহায্য করবে।

একটি হল অথোরেটি সাইটে পোস্ট করার মাধ্যমে আপনি গুড কোয়ালিটি অথোরেটি ব্যাক লিঙ্ক পাচ্ছেন যা আপনার সাইটের জন্য অতীব গুরুত্বপূর্ণ তাছাড়াও আপনি ব্লগিং কমিনিটির সাথে ভালো করে পরিচিত হতে পারছেন । তাছাড়া গেস্ট ব্লগিং করার জন্য ব্যাকলিংকের পাশাপাশি আপনি প্রচুর পরিমাণ টার্গেটেড ভিজিটর পাচ্ছেন। তাহলে গেস্ট ব্লগিংয়ের গুরুত্ত কি সবাই বুঝতে পারছেন নিশ্চয় ? তাহলে যারা এতদিন গেস্ট ব্লগিং করতেন না তারা আজকে থেকেই গেস্ট ব্লগিং শুরু করে ফেলুন 🙂

#লং টেইল কী-ওয়ার্ডের উপর গুরুত্ব দিনঃ

লং টেইল কী-ওয়ার্ড

মনে করেন আপনি একটি পোস্ট লিখছেন এবং এটির কী-ওয়ার্ড দিলেন “Importance of Blogging” এবং আপনার টার্গেট হল এই কী-ওয়ার্ড এর কম্পিটেটরদের আপনার বিড করা তাহলে আপনার এই ধরনের কী-ওয়ার্ড নিয়ে কম্পিটেটরদের বিড করা অনেক কঠিন হবে । আবার আপনি যদি “importance of blogging in 2019” এই ধরনের লং ট্রাইল কী-ওয়ার্ড ইউস করেন তাহলে আপনি অনেক সহজেই আপনার কপিটিটরদের বিদ করতে পারবেন। তাহলে বুঝতেই পারছেন লং ট্রাইল কী-ওয়ার্ডের গুরুত্ত কেমন ? সামনে কী-ওয়ার্ড রিসার্চ নিয়ে বিস্তারিত আকারে একটি টিউন করবো সেই পর্যন্ত অপেক্ষায় থাকুন ।

#ব্যাক লিঙ্কঃ

ব্যাকলিংকস

আগে সবাই এতো পরিমাণ ব্যাক লিঙ্ক ক্রিয়েট করতাম সাইটের জন্য যা আমরা নিজেই স্বীকার করতাম যে এটা স্পামের পর্যায়ে। তবে এখন স্পাম করলে আপনার খবর আছে যাই করবেন ন্যাচারেলি করবেন ভুলেও স্পাম আকারে ব্যাক লিঙ্ক করতে যাবেন না। ব্যাক লিঙ্ক করার জন্য আপনি যা যা করতে পারেন Social Bookmark, Forum Posting, Guest Blogging, Link While, Relevant Blog Comment, RSS Submission, Directory Submission ইত্যাদি তবে স্পামের মত অতিরিক্ত করবেন নাহ।

আর অনেকেই আছে সফটওয়্যার ব্যবহার করে ব্যাক লিঙ্ক করে এটাতো অবশ্যই এড়িয়ে চলবেন সাথে অনেক সাইট আছে যারা ফ্রী ব্যাক লিঙ্ক দেয় ঔ সব সাইটকেও এড়িয়ে চলবেন। তাছাড়াও অনেকেই পেইড ব্যাক লিঙ্ক ক্রিয়েট করে কিন্তূ আপনি কি জানেন এই পেইড ব্যাক লিঙ্ক গুলো কিভাবে করে ?

যদি না জেনে থাকনে তাহলে নিজ দায়িত্তে জেনে নিবেন । আপনার ব্যাক্তিগত সাজেশান হল আপনার যদি ব্যাক লিঙ্ক ক্রিয়েট করতে এতো আলসে লাগে আমাদের দেশে অনেকই আছে যারা আপনাকে অল্প টাকায় ন্যাচারেল ব্যাক লিঙ্ক ক্রিয়েট করে দিবে তাতে আপনারও লাভ হবে সাথে তাঁদেরও ।

আর একটি কাজ যেটি ব্যাক্তিগত ভাবে আমি করি এবং এটা যে কত কাজের তা আমিই জানি তাই আপনি ট্রাই করে দেখতে পারেন জানিনা আর কে করে 🙂। আপনার ব্লগে নতুন পোস্ট পাবলিশড করার পর পরই চেষ্টা করবেন সেই পোস্টের পারমালিংকের উপর অন্তত ৪-৫ টি হাই কোয়ালিটি অথোরিটি ব্যাক লিঙ্ক তৈরি করা সেটা যেভাবেই হোক। হতে পারে গেস্ট ব্লগিং করে অথবা অন্য যে কোন উপায়ে ।

যদি আপনি এমন ভাবে ব্যাক লিঙ্ক করতে পারেন সার্চ ইঞ্জিনে আপনার পোস্ট যে অতি শিগ্রই এগিয়ে আসবে সেই ব্যাপারে গ্যারান্টি আমি দিচ্ছি 🙂। আমার বাস্তব অভিজ্ঞতা থেকে প্রাক্তিকাল এই টিপস গুলোই আমি আপনাদের শেয়ার করলাম। যদি কোন ভুল হয় ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখেবন।

আর আপনার কোন সাজেশান থাকলে অবশ্যই বলবেন যে আপনার সাইটকে র‍্যাঙ্ক করানোর জন্য আপনি কোন টিপস ফলো করেন পড়ে আমি আপনারটা অ্যাড করে পোস্ট ইডিট করে দেব। অনেক কষ্ট হল পোস্টটি লিখতে যদি আপনারা এতে সামান্যতম উপকৃত হন তাহলে আমার কষ্ট সার্থক। ভালো লাগলে কমেন্টের মাধ্যমে উৎসাহ দিতে ভুলবেন নাহ 🙂.

সম্বন্ধে আবু তালহা রাফি

এছাড়াও পড়ুন

ওয়ার্ডপ্রেস

কীভাবে আপনার ওয়ার্ডপ্রেস ব্লগের জন্য উপযুক্ত থিম নির্বাচন করবেন?

পেইড এবং ফ্রি মিলিয়ে ওয়ার্ডপ্রেসের প্রায় লক্ষ্য লক্ষ্য থিম আছে যেখান থেকে আপনি আপনার ব্লগের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

seventeen + twelve =