নীড় / টিউটোরিয়াল / এসইও / বাউন্স রেট কি এবং কিভাবে কমাবেন এই বাউন্স রেট?
বাউন্স রেট কি এবং কিভাবে কমাবেন এই বাউন্স রেট?

বাউন্স রেট কি এবং কিভাবে কমাবেন এই বাউন্স রেট?

বাওন্স রেট সম্পর্কে আপনারা  অনেকেই জানেন আবার অনেকেই জানেন না। যারা জানেন তাদের অনেকেই আবার পুরপুরি জানেন না। তাই আপনাদের সাথে এই ব্যাপারটি শেয়ার করি।

প্রথমে আসি এই বাউন্স রেট কি?

Bounce কথাটার বাংলা অর্থ হলো লাফ দেয়া। অর্থাৎ কেউ সাইটে ভিজিট করতে আসলো আর ভাল লাগলো না তাই আপনার সাইট থেকে লাফ দিয়ে চলে গেল। বাউন্স রেট বলতে বুঝায়  আপনাদের ওয়েবসাইট বা ব্লগ এ কোন ভিসিটর এর অপ্রিয়তার হার। কতজন ভিসিটর আসলো আর তার মধ্যে কতজন ভিসিটর বাওন্স করে চলে গেল। এখন কথা হল আপনার সাইট এ কোন ভিসিটর কতক্ষন থাকার পর আপনার সাইট থেকে চলে গেলে এটাকে লাফ দেয়া বা বাউন্স রেট  বলে। কারন যত ভিসিটর ই আসুক না কেন কিছু সময় পর সে চলে যাবে এটাই স্বাভাবিক। এখন কত সময় এর আগে চলে গেলে আমরা এটাকে লাফ দেয়া বলব। এই সময়টা হল, কেউ যদি আপনার সাইট আসার পর ৩০ সেকেন্ড এর মধ্যে চলে জায় তাহলে এটি বাউন্স রেট বলে কাউন্ট হবে। আশা করি সবাই বুঝেছেন।

এই বাউন্স রেট আমাদের সাইট এর জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ। কারন আমরা যাই করিনা কেন আমাদের টার্গেট এক মাত্র ভিসিটর। আমরা সবাই চাই যেন আমাদের সাইট গুগল সার্চ রাঙ্কের প্রথমের দিকে থাকুক আর এ ক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় সার্চ ইঞ্জিন গুগল আমাদের প্রথম টার্গেট হওয়া উচিৎ। গুগল যখন কোন সাইট কে রাঙ্ক দেয় তখন সে যে যে বিষয় এর দিকে গুরুত্ত দেয় তার মধ্যে প্রধান হল বাওন্স রেট। সুতরাং সাবধান।

এখন আসি কি করে এই বাউন্স রেট কমাবেন।

  • প্রথমে যেটা বলব উল্টাপাল্টা জায়গায় ব্যাক লিঙ্ক করবেন না। এটি অনেক বড় অংশে দায়ী আপনার সাইট এর বাউন্স রেট বাড়ার জন্য। যদি ব্যাক লিঙ্ক করেন তাহলে রিলিভেন্ট জায়গায় ব্যাক লিঙ্ক করবেন। ব্যাক লিঙ্ক করার আগে যে জিনিস টা মনে রাখবেন সেটা হল আপনার সাইট সে বিষয় এ সেই বিষয় সম্পর্কিত সাইট ব্যাক লিঙ্ক করার চেষ্টা করবেন। এতে যেমন আপনার সাইট এর বাউন্স রেট বারবে না তেমন গুগলেও পেনাল্টি খাবেন না।
  • সাইট এর ডিজাইন আকর্ষণীয় করতে হবে।
  • সঠিক কি ওয়ার্ড নির্বাচন করতে হবে।
  • সাইট এর লোডিং স্পীড কমাতে হবে।
  • সাইট এ যদি অতিরিক্ত অ্যাড থাকে তাহলে তা কমাতে হবে।
  • ইউজার ফ্রেন্ডলি নাভিগেশন তৈরি করা।

ভাল থাকবেন। সকলকে ধন্যবাদ।

সম্বন্ধে বাধন

এছাড়াও পড়ুন

ফাংশন কি

ফাংশন কি’র কাজ

আমরা অনেকেই জানি “ফাংশন কি” কাকে বলে, কিবোর্ডে এফ-১ থেকে এফ-১২ পর্যন্ত ১২টি চাবি বা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

2 + five =