নীড় / রূপচর্চা / ব্রোঞ্জার ব্যবহার | ৯টি টিপস জেনে করুন পারফেক্ট মেকআপ.!
bronzer makeup

ব্রোঞ্জার ব্যবহার | ৯টি টিপস জেনে করুন পারফেক্ট মেকআপ.!

বর্তমান সময়ে মেকআপ ব্যবহারে ব্রোঞ্জার শব্দটি অতি পরিচিত। মেকআপ লাভারদের কাছে এই মেকআপ প্রোডাক্ট-টি অনেক বেশী জনপ্রিয়। এটি সাধারণত দিনের বেলা ন্যাচারাল মেকআপ-এর জন্যে করা হয়। এতে হালকা শিমার থাকে যা আমাদের ফেইস-এ একটা সান-কিসড লুক দেয় এবং ফেইস-এ হালকা কন্ট্যুর-এর ভাব আনে। যা দেখতে অনেক আকর্ষনীয় লাগে। যারা দিনের বেলা কন্ট্যুরিং পছন্দ করেন না, চোখ বন্ধ করে ব্রোঞ্জার ব্যবহার করেই সুন্দর এবং ন্যাচারাল লুক পেতে পারেন। চলুন তবে দেখে নেই ৯টি টিপস!

bronzer makeup

ব্রোঞ্জার ব্যবহার করতে টিপসসমূহ:

(১) স্কিন টোন মিলিয়ে কিনতে হবে

ব্রোঞ্জার কেনার সময় সবসময় স্কিন কালার, টোন বুঝে কিনতে হবে। স্কিন-এর থেকে ১-২ শেড ডার্ক কালার ব্রোঞ্জার কিনতে হবে। বেশি লাইট শেড-এর হলে তা ফেইস-এ ভালোভাবে বোঝা যাবে না এবং বেশি ডার্ক কালার-এর ব্যবহারে ফেইস দেখতে বাজে লাগবে।

bronzer makeup

(২) স্কিন টাইপ বুঝে কিনতে হবে

ব্রোঞ্জার ব্যবহারে স্কিন টাইপ-এর কথা মাথায় রাখতে হবে। আপনার যদি নরমাল অথবা অয়েলি স্কিন হয়, তাহলে ব্যবহার করুন পাউডার ব্রোঞ্জার। ড্রাই স্কিন হলে ক্রিম বেইস ব্রোঞ্জার ইউজ করুন।

(৩) পাউডার-এর পর ব্যবহার করুন

সবসময় ফাউন্ডেশন ব্যবহারের পর, তা পাউডার দিয়ে সেট করে তারপর ব্রোঞ্জার অ্যাপ্লাই করুন। এটি আপনার ব্রোঞ্জার পাউডার ভালোভাবে ব্লেন্ড হতে সাহায্য করবে। ফাউন্ডেশন-এর পর পাউডার ব্যবহার না করে ব্রোঞ্জার ইউজ করলে তা ব্লেন্ড করতে অনেক বেশি কষ্ট হবে।

(৪) ব্রোঞ্জার ব্রাশ ব্যবহার করুন

bronzer makeup

সবসময় ব্রোঞ্জার ব্যবহারের সময় ব্রাশের দিকে খেয়াল রাখুন। অনেক বড় অথবা অনেক ছোট ধরণের ব্রাশ দিয়ে ব্রোঞ্জার ব্যবহারের চেষ্টা করবেন না। এতে ব্রোঞ্জার-এর ব্যবহার সুন্দরভাবে হবে না। ব্রোঞ্জার ব্যবহারের জন্য ব্যবহার করুন ব্রোঞ্জার ব্রাশ/অ্যাঙ্গেল ব্রাশ। এগুলো ব্রোঞ্জার ব্যবহারের জন্য তৈরি হয়, যা আপনার ব্রোঞ্জার-কে ফেইস-এ পারফেক্ট-ভাবে ব্যবহারে সাহায্য করে।

(৫) অতিরিক্ত শিমার যেন না থাকে

ব্রোঞ্জার কেনার আগে খেয়াল রাখবেন, সেটি যেন অতিরিক্ত শিমারি না হয়। অতিরিক্ত শিমার ফেইস-এ ব্যবহার করলে তা দেখতে মোটেও ভালো লাগবে না।

(৬) কন্ট্যুরিং এরিয়াতে ব্যবহার করতে হবে

bronzer makeup

ফেইস-এর যে সব স্থানে আমরা কন্ট্যুরিং করে থাকি, বিশেষ করে ওই সব স্থানেই ব্রোঞ্জার ব্যবহার করতে হয়। ব্রোঞ্জার পাউডার ব্রোঞ্জার ব্রাশে নিয়ে আমাদের চিক বোনের নিচের দিকে, কপালে হেয়ার লাইনের দিকে, থুতনির নিচে ব্রোঞ্জার লাগাতে হবে এবং ভালোভাবে ব্লেন্ড করে নিতে হবে। খেয়ার রাখতে হবে  যাতে চারদিকে অতিরিক্ত ছড়িয়ে না যায়।

(৭) অতিরিক্ত ব্যবহার করা যাবে না

অনেকে ফেইস-এ অতিরিক্ত ব্রোঞ্জার ব্যবহার করে ফেলে। যা দেখতে খুব একটা ভালো লাগে না। সবসময় পরিমাণ মতো ব্যবহার করলেই তা দেখতে ভালো লাগে।

(৮) ভালোভাবে ব্লেন্ড করতে হবে

পারফেক্ট ন্যাচারাল মেকআপ-এর মূল শর্ত ব্লেন্ডিং। ব্রোঞ্জার ব্যবহারের পর তা অবশ্যই ভালোভাবে ব্লেন্ড করে নিতে হবে। ব্লেন্ড না করলে তা দেখতে হাস্যকর লাগবে।

(৯) গলাতেও ব্রোঞ্জার দিন

ব্রোঞ্জার শুধুমাত্র ফেইস-এ অ্যাপ্লাই না করে হালকাভাবে গলার দুই পাশেও ইউজ করতে হবে। তাতে ফেইস এবং গলার মেকআপ-এ মিল থাকবে।

এই তো ছিল ব্রোঞ্জার ব্যবহারের কিছু টিপস। আশা করি, টিপস-গুলো আপনাদের মেকআপ-এ ব্রোঞ্জার ব্যবহারের ক্ষেত্রে হেল্পফুল হবে।

 

 

সম্বন্ধে জাফরিন আফরোজ

এছাড়াও পড়ুন

foundation makeup

ফাউন্ডেশন ব্যবহারের জন্য ৬টি গুরুত্বপূর্ণ টিপস!

মেকআপ-এর একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ হচ্ছে ফাউন্ডেশন। ফাউন্ডেশন চিনেন না এমন মানুষ আজকাল আর খুঁজে পাওয়া …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

4 − 1 =