নীড় / টিউটোরিয়াল / এসইও / সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশনের ক্ষেত্রে অ্যাংকর টেক্সটের প্রয়োজনীয়তা.!

সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশনের ক্ষেত্রে অ্যাংকর টেক্সটের প্রয়োজনীয়তা.!

যারা সার্চ ইঞ্জিন অপাটিমাইজেশন বা ব্লগিংয়ের সঙ্গে জড়িত আছেন তারা অনেকেই জানেন এবছর সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন [এসইও] এর ক্ষেত্রে অনেক পরিবর্তন এসেছে। বিশেষ করে গুগলের সর্বশেষ পেঙ্গুইন ও পান্ডা আপডেটের পর এসইও রিলেটেডদের নতুন করে ভাবতে হচ্ছে। এই দুইটি আপডেটের পর অনেকেই সার্চ ইঞ্জিনে ভালো অবস্থানে এসেছেন আবার অনেকেই ফল করেছেন। বিশেষ করে ব্যাকলিংকের ক্ষেত্রে অনেক প্রভাব পড়েছে গুগলের এই ডাটাবেজ আপডেটের ফলে। আর ব্যাকলিংকের ক্ষেত্রে যে বিষয়টি কাজ করে সেটি হলো অ্যাংকর টেক্সট।

অ্যাংকর টেক্সট:

প্রায় প্রতিটি পোস্টের মধ্যেই হাইপারলিংক সহকারে টেক্সট থাকে, যেটি ঐ নিদ্দিষ্ট টেক্সটির রিলেটের পূর্বের কোনো পোস্ট বা অন্য কোনো ওয়েবসাইট বা সাইটের কন্টেন্টের লিংক বসানো থাকে। আপনি হাইপারলিংক করা টেক্সটির উপর মাউসের কার্সর নিলে যে টেক্সট দেখায় সেটাই অ্যাংকর টেক্সট।

সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশনের ক্ষেত্রে অ্যাংকর টেক্সট:

বর্তমানে সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশনের ক্ষেত্রে ডিরেক্ট ও ইন-ডিরেক্ট অ্যাডভান্টেজ রয়েছে। যেগুলো ওভারকাম করা একজন সফল সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজারের দায়িত্ব। আপনাকে যখন একটি ব্লগ পোস্ট লিখতে বলা হয়, সেসময় আপনার কিওয়ার্ড রিসার্স ও অন-পেজ অপটিমাইজেশন জরুরী। আপনার ব্লগপোস্টটিতে অবশ্যই ১/২টি কিওয়ার্ড থাকতে হবে। কিন্তু বর্তমানে অধিকাংশ ব্লগারের ক্ষেত্রে যেটি ভুল হয় সেটি হলো তারা কোনো পোস্টে তাদের পুরাতন লেখাগুলোর লিংক করতে গিয়ে এভাবে লেখেন, এখানে পড়ুন, আরো তথ্যের জন্য এখানে ক্লিক করুন ইত্যাদি। আসলে এগুলো পাঠককে আপনার আগের রিলেটেড লেখায় নিয়ে গেলেও সার্চ ইঞ্জিনের ক্ষেত্রে এটি কোনো গুরুত্ব বহন করে না। এর বিপরীতে আপনি আপনি আপনার টার্গেটেড কিওয়ার্ডয়ের দিয়ে অ্যাংকর টেক্সটের মাধ্যমে পুরাতন লেখাটি ব্যাকলিংক করতে পারেন।
এটা শুধু ইন্টারন্যাল লিংকিং নয়, আপনি যখন কোনো ব্লগ বা ফোরামে অতিথি পোস্ট করবেন, আপনি অবশ্যই নিশ্চিত হবেন যে সেখান থেকে অ্যাংকর লিংকের মাধ্যমে আপনার সাইটের ব্যাকলিংক পাবেন। তবে সেটি যেনো অকশ্যই আপনার পোস্ট রিলেটড হয় সেটি খেয়াল রাকতে হবে। এছাড়া অ্যাংকর টেক্সটি এমন হতে হবে যেনো এটি ভিজিটরকে আপনার লিংকে যেতে অনুপ্রাণিত করে। এই বিষয়টি গুরুত্ব দেওয়া প্রয়োজন। টার্গেটেড কিওয়ার্ড ব্যবহার করলে অ্যাংক টেক্সটি নূণ্যতম ৫০ শতাংশ কার্যকরী হবে ও গুগল অ্যালগরিদম আপডেটে অবশ্যই ভালো ব্যাকলিংক পাওয়া যাবে।

ওয়ার্ডপ্রেসে অ্যাংকর টেক্সট যুক্ত করা খুবই সহজ। পোস্টের যে টেক্সটির সাথে অণ্যকোনো পোস্টেও লিংক করাতে চান সে টেস্টগুলো সিলেক্ট করে উপরের দিকে টুলস থেকে Insert/edit link এ ক্লিক করতে হবে। এখন একটি পপ-আপ বক্স আসবে। সেখানে ইউআরএল ঘরে আপনি যে পোস্টটির বা ওয়েব অ্যাড্রেসের সঙ্গে লিংক যুক্ত করতে চান সে পোস্ট বা ওয়েবের লিংকটি লিখতে হবে। এখন নিচে টাইটেল এর ঘরে আপনার কিওয়ার্ড সহ পোস্টটি কি সম্পর্কিত সেটি লিখতে পারেন। এই টাইটেলই আপনার অ্যাংকর টেক্সট। এখন নিচের অ্যাডলিংক বাটনটি ক্লিক করলেই অ্যাংকর টেক্সটটি সহকারে আপনার ব্যাকলিংকটি তৈরি হবে।

নিচের স্কিনশর্টটি দেখলে বুঝতে পারবেন।

ancor text

অ্যাংকর টেক্সটের ডিরেক্ট ও ইন-ডিরেক্ট লাভ:

পাঠকদের ক্ষেত্রে: পাঠকদের ক্ষেত্রে অ্যাংকর টেক্সটি অনেক গুরুত্বপূর্ণ ভ’মিকা পালন করে। কারণ তারা আপনার পোস্টটি থেকে আরো বেশি রিলেটেড লিংকে প্রবেশ করে প্রয়োজনীয় তথ্যটি পেতে পারে। রিলেটেড লিংকটি আপনার সাইটের হলে স্বাভাবিকভাবেই তারা বেশিক্ষণ আপনার সাইটে ঘোরাঘুরি করবে এবং পেজভিউ বাড়বে। তারা এটা নিশ্চিত হবে যে আপনার সাইটে আসলে নিদিষ্ট বিষয় সম্পর্কিত প্রায় সব তথ্যই পাওয়া যায়। তবে আপনার লিংকটি রিলেভেন্ট না হলে পাঠক বিরক্তি পাবে। তাই অ্যাংকর টেক্সট যুক্ত করার সময় অবশ্যই এটি সে সম্পর্কিত হতে হবে।

এসইও এর ক্ষেত্রে: এসইও এর ক্ষেত্রে অ্যাংকর টেক্সট খুবই গুরুত্ববহণ করে। পাঠকের দিক থেকে প্রয়োজনীয়তার কথা বিবেচনা করলেই বোঝা যায় এটা এসইওর ক্ষেত্রে কতোটা ভ’মিকা রাখে। অ্যাংকর টেক্সটের একটি ব্যাকলিংকের মাধ্যমে সার্চ ইঞ্জিনে অনেক ভালো পজিশন পাওয়া সম্ভব। হোমপেজের পরিবর্তে আপনার সাইটের ইন্টারন্যাল পেজের লিংক করলে আরো বেশি সাড়া পাওয়া যায়।

সম্বন্ধে রুশাদ ইসলাম

এছাড়াও পড়ুন

wordpress

আপনার ওয়ার্ডপ্রেস মেনু কে সাজিয়ে নিন ৩ কলামে.!

আমি আজকে আপনাদের সাথে আলোচনা করব ” কি ভাবে আপনি আপনার ওয়ার্ডপ্রেস ব্লগ এর মেনুকে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

eight + 19 =